আজ ১১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৭, বুধবার ২৫ নভেম্বর ২০২০ , ৪:২২ অপরাহ্ণ
ব্রেকিং নিউজ
সর্বশেষ খবর
নারায়ণগঞ্জবাসীকে ঈদুল ফিতরের আগাম শুভেচ্ছা জানালেন সজল বিন ইবু রূপগঞ্জ উপজেলায় সকল মার্কেট বন্ধের নির্দেশ সোনারগাঁয়ে সকল বিপনি বিতান বন্ধ করে দিলেন প্রশাসন না’গঞ্জের সাবেক সেই এসপি হারুন এবার ডিএমপির উপ-কমিশানর করোনা: শরীফুল হকের পক্ষে সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানালেন শাওন

করোনায় ধস নেমেছে নারায়ণগঞ্জের পর্যটন ও বিনোদন শিল্পে


৩০ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার, ০৬:০০  পিএম

সময় নারায়ণগঞ্জ


করোনায় ধস নেমেছে নারায়ণগঞ্জের পর্যটন ও বিনোদন শিল্পে

তুষার আহমেদ : প্রাণঘাতী নভেল করোনা ভাইরাসে স্থবির হয়েছে নারায়ণগঞ্জের প্রতিটি খাত। খেলার মাঠ থেকে শুরু করে রাজনৈতিক অঙ্গন, সবকিছুই হিম করে দিয়েছে এই ভাইরাসটি। সদা প্রাণচঞ্চল ও শিল্প সমৃদ্ধে পরিপূর্ন এই নারায়ণগঞ্জের আকাশ যেন আতঙ্কের মেঘে ঢাকা পড়েছে।

গত ৮ মার্চ থেকে দেশে করোনা সনাক্ত হলেও সংক্রোমন এড়াতে ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। এরপর বদলে যায় নারায়ণগঞ্জের দৃশ্যপট। একে একে বন্ধ হতে থাকে অফিস আদালত ও কর্মপ্রতিষ্ঠান। সূত্র বলছে, তারও আগে থেকেই বন্ধ করা হয়েছে নারায়ণগঞ্জের বিনোদন ও পর্যটন কেন্দ্রগুলো।

প্রায় দেড় মাসেরও বেশি সময় ধরে নারায়ণগঞ্জের খানপুর বরফকল এলাকায় অবস্থিত চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসি পার্ক, ফতুল্লা স্টেডিয়াম সংলগ্ন নাসিম ওসমান মেমোরিয়াল পার্ক, পঞ্চবটি এলাকায় অবস্থিত এ্যাডভাঞ্চার ল্যান্ড পার্ক, সোনারগাঁয়ের লোক ও কারুশিল্প যাদুঘর, তাজমহল, পানাম সিটি ও পাগলার মেরী এন্ডারসন সহ অন্যান্য বিনোদন ও পর্যটন কেন্দ্র গুলো বন্ধ রয়েছে। করোনা নির্মূল না হওয়ায় আসন্ন ঈদুল ফিতরেও বিনোদন কেন্দ্র খোলার সম্ভাবনা একেবারেই নেই। ফলে কোটি কোটি টাকার লোকসানের মুখে পরেছে এসব বিনোদন ও পর্যটন কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ।

সূত্র বলছে, বছরের বেশিরভাগ সময় এসব পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্রগুলো পর্যটক শূন্য থাকলেও ঈদুল ফিতর, ঈদুল আযহা, দূর্গা পূজা, পহেলা বৈশাখ, রাষ্ট্রীয় বিশেষ দিবসের ছুটির দিন ও বিশ^ ভালোবাসা দিবসে দর্শনার্থীদের পদচারণায় তা পরিপূর্ণ হয়ে উঠে। এক্ষেত্রে মূলত ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহার সময়টিকে মৌসুম হিসেবে ধরা হয়। তাই বছরের এই দুই ঈদের দিকেই বেশি নজর থাকে এসব বিনোদন ও পর্যটন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের। কেননা এই সময়ের আয় দ্বারা বছরের অন্যান্য দিনের ঘাতটি মেটানো হয়। কিন্তু এবার সেই আশার গুড়ে যেন বালু ঢেলে দিয়েছে করোনা নামক এই মহামারি।

এমনিতেই এক মাসেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকায় আয় থেমে গেছে বিনোদন কেন্দ্রগুলোর। তার উপর ঈদেও তা খোলার মত লক্ষন তৈরী না হওয়ায় কপালে চিন্তার ভাজ পড়েছে কর্তৃপক্ষের।

এদিকে আরো খারাপ অবস্থা যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র সোনারগাঁয়ে অবস্থিত লোক ও কারুশিল্প জাদুঘর, তাজমহল ও পানাম সিটির। অনুসন্ধানে জানা গেছে, এবছর শুধু লোক ও কারুশিল্প যাদুঘরেই অন্তত সোয়া ২ কোটি টাকার ঘাটতি দেখা দিবে। যা ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে।

এবিষয়ে লোক ও কারুশিল্পের উপ-পরিচালক মোঃ রবিউল ইসলাম মুঠোফেনের মাধ্যমে বলেন- ‘সরকার ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করলেও আমরা তারও আগে ১৮ মার্চ থেকে বন্ধ রেখেছে। পুরনো ইতিহাসেও এতো দীর্ঘ সময় ধরে বন্ধ থাকার রেকর্ড নেই।’

তিনি বলেন- ‘এবছর আমাদের টার্গেট ছিলো যে, দুই ঈদ, পূজা ও বৈশাখ মিলিয়ে অন্তত সাড়ে সাত লাখ দর্শনার্থীর সমাগম হবে। টিকিটের মূল্য ৩০ টাকা করে। সে হিসেবে শুধু সাড়ে ৭ লাখ টিকিট বিক্রি থেকেই ২ কোটি ২৫ লাখ টাকা আয় হতো। কিন্তু তা হয়ে উঠছে না। ঘাটতি থেকে যাচ্ছে। যেমন ধরুন, পহেলা বৈশাখের দিনেই অন্তত ৩০ হাজার টিকিট বিক্রির কথা ছিলো। কিন্তু করোনার জন্য বন্ধ থাকায় তা হয়নি। তাই বৈশাখের এক দিনেই ৯ লাখ টাকা লোকসান হয়ে গেল। আর ঈদতো আরো বড় ইভেন্ট।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা বিশাল ঘাটতি। সব স্বাভাবিক হলে আগামী বছরেও এই ঘটতি পূরন হবে কি না, তা নিয়ে শঙ্কা থেকেই যায়।’

নারায়ণগঞ্জ শহরে অবস্থিত চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসি পার্কের এক কর্তৃপক্ষ বলেন, ‘গত প্রায় ২০ মার্চ থেকেই সবকিছু বন্ধ রেখেছি। দীর্ঘ এক মাসেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকায় আর্থিক মন্দা শুরু হয়েছে। সারা বছর অল্প কিছু দর্শনার্থী আসলেও আমাদের মূল টার্গেট থাকে রোজা ও কুরবানীর ঈদে। সব বিনোদন কেন্দ্র গুলো এই সময়ের জন্য মুখিয়ে থাকে। এই দুই ঈদের সময়কে আমরা মৌসুম বলে বিবেচনা করি। কিন্তু করোনার কারণে এবার রোজার ঈদে পার্ক খোলারমত কোন সম্ভাবনাতো নেই, এমনকি কুরবানী ঈদেও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয় কি না তা বলা যাচ্ছে না। তাই পুরো বছর নিয়েই আশঙ্কা থেকে যাচ্ছে। এতে কোটি টাকার উপরে লোকসান হচ্ছে।’

 http://www.somoynarayanganj.com/media/PhotoGallery/2018May/Photo_2-O20200430115957.jpg

এদিকে, পানাম ও তাজমহল পর্যটন কেন্দ্রসহ অন্যান্য বিনোদন কেন্দ্রগুলোর কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাদের ফোনে পাওয়া যায়নি। ফতুল্লা স্টেডিয়াম সংলগ্ন নাসিম ওসমান মেমোরিয়াল পার্কের মালিক মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ-নিজামকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনিও ফোন রিসিভ করতে সক্ষম হননি।

তবে শুধু লোক ও কারুশিল্প যাদু ঘর থেকেই সোয়া ২ কোটি টাকার ঘাটতির আশঙ্কা দেখা দিলে পানাম ও তাজমহল পর্যটন কেন্দ্রসহ জেলার অন্যান্য পর্যটন কেন্দ্র ও পার্কগুলোর পরিসংখ্যান যে আরো ভয়াবহ ঘাটতির হাতছানি দিচ্ছে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

এদিকে, দীর্ঘদিন লকডাউনের কারণে ঘরবন্দি থাকায় শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে তরুণ-তরুণী ও যুবক-যুবতীদের মধ্যে অস্বস্তি চলে এসেছে। ঈদে ঘরবন্ধি থেকে এই অস্বস্তির মাত্রা বাড়বে বহুগুণে।

এবিষয়ে ফতুল্লার লালপুর এলাকার রুমেল নামে এক তরুণ আক্ষেপ করে জানান- ‘দীর্ঘদিন ঘরে বসে থেকে অস্বস্তি অনুভব করছি। পরিস্থিতি দেখে বলাই যায়, আসন্ন ঈদেও হয়তো মুক্তি মিলবে না।’

তিনি বলেন- ‘ঈদ এলে বন্ধুদের সহ পরিবারের সাথেও বিনোদন কেন্দ্র গুলোতে ঘুরতে যেতাম। কিন্তু এবার হা হয়ে উঠবে না। ভাবতেই কষ্ট হচ্ছে। তবে এই পরিস্থিতিতে কিছু করাও নেই।’

সব মিলিয়ে ‘করোনা’.. ‘করোনা’... ‘করোনা’...... গেল কয়েক মাসে এই শব্দটি শুধু মুখেই নয়, গেঁথে বসেছে নারায়ণগঞ্জ বাসীর অন্তরেও! এর থেকে পরিত্রাণ পেয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে হলে প্রত্যেককে হতে হবে ‘কোভিড যোদ্ধা’ ! সরকারের বিধি-নিষেধ মেনে ঘরে বসে সচেতনতার অস্ত্র দিয়েই লড়াই করে যেতে হবে করোনা নামক এই শত্রæর বিরুদ্ধে। এমন আহবানই জানিয়ে আসছেন দেশের স্বাস্থ্য বিভাগ।

 

সময় নারায়নগঞ্জ.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:

মহানগর -এর সর্বশেষ