আজ ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, মঙ্গলবার ০২ জুন ২০২০ , ৫:৩৮ অপরাহ্ণ
ব্রেকিং নিউজ
সর্বশেষ খবর
নারায়ণগঞ্জবাসীকে ঈদুল ফিতরের আগাম শুভেচ্ছা জানালেন সজল বিন ইবু রূপগঞ্জ উপজেলায় সকল মার্কেট বন্ধের নির্দেশ সোনারগাঁয়ে সকল বিপনি বিতান বন্ধ করে দিলেন প্রশাসন না’গঞ্জের সাবেক সেই এসপি হারুন এবার ডিএমপির উপ-কমিশানর করোনা: শরীফুল হকের পক্ষে সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানালেন শাওন

বিএনপি নেতা শাহ-আলমের কারখানায় শ্রমিকদের উপর হামলা, আহত- ৩৫


১৪ মে ২০২০ বৃহস্পতিবার, ১১:১৭  এএম

সময় নারায়ণগঞ্জ


বিএনপি নেতা শাহ-আলমের কারখানায় শ্রমিকদের উপর হামলা, আহত- ৩৫

স্টাফ রিপোর্টার : পারিশ্রমিক দাবি করায় ফতুল্লায় বিএনপি নেতা শাহ-আলমের মালিকানা জালাল আহমেদ টেক্সটাইল ও স্পিনিং মিলের শ্রমিকদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় অন্তত ৩৫জন শ্রমিক আহত হয়েছে। বুধবার সকাল ৬টার দিকে ফতুল্লার লালপুর রেললাইন বটতলা এলাকায় অবস্থিত ওই কারখানার ভিতরে মালিক পক্ষের দ্বারা এই হামলার ঘটনা ঘটে।


আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজনকে গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।


জানা গেছে, দেশজুড়ে যখন কঠোর লকডাউন চলছিলো, তখন ফতুল্লার শিল্প কারখানা গুলো বন্ধ থাকলেও নিজ প্রতিষ্ঠান খোলা রেখেছিলেন শাহ-আলম। চাপের মুখে শ্রমিকরাও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে বাদ্ধ হয়েছেন। পত্র-পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে গত ১৩ এপ্রিল থেকে প্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হয়। সরকারের প্রনোদনা গ্রহণের পর শর্তানুসারে এপ্রিল মাসে শ্রমিকদের বেতনের ৬০ শতাংশ পরিশোধ করে কর্তৃপক্ষ।


কিন্তু অন্যান্য প্রতিষ্ঠান পুরো এপ্রিল মাসজুড়ে বন্ধ রেখেও তাদের শ্রমিকদের ৬০ শতাংশ বেতন পরিশোধ করেছে। আর এই প্রতিষ্ঠানে এপ্রিল মাসের ১৩ দিনে যেই অতিরিক্ত পরিশ্রম করতে হয়েছে, সেই ১৩ দিনের পারিশ্রমিক দাবি করাকে কেন্দ্র করে শ্রমিকদের উপর হামলা চালায় জালাল আহমেদ টেক্সটাইল ও স্পিনিং মিলের স্টাফরা। শ্রমিকদের অভিযোগ, হামলায় বহিরাগত সন্ত্রাসীরাও অংশ নেয়।


প্রতিষ্ঠানটিতে কর্মরত আব্দুর রহমান নামে এক শ্রমিক বলেন- এই প্রতিষ্ঠানে সব মিলিয়ে অন্তত ৭ থেকে ৮ হাজার শ্রমিক রয়েছে। তিন শিফটে কাজ চলে। মঙ্গলবার রাত ১০টায় আমরা প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক কাজে যোগ দেই। পরদিন বুধবার (১৩ মে) সকাল ৬টার দিকে আমাদেরকে এপ্রিল মাসের ৬০ শতাংশ বেতন দেয়া হয়। এই ৬০ শতাংশ বেতন তাদের জন্য যারা পুরো এপ্রিল মাসজুড়ে কাজ করেননি। কিন্তু আমরা মালিকপক্ষের চাপে পরে করোনার প্রবল ঝুঁকির মধ্যেও এপ্রিল মাসের ১৩ দিন কাজ করেছি। সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও আমাদের কাজ করতে হয়েছিল। আমরা আমাদের সেই ১৩ দিনের পারিশ্রমিক দাবি করায় মালিক পক্ষের হুকুমে কারখানার স্টাফগণ বহিরাগত সন্ত্রাসীদের নিয়ে আমাদেরকে কারখানায় আটকিয়ে মারধর করেছে। অন্তত ৩৫ জন শ্রমিক আহত হয়েছে। এর মধ্যে দুজনকে মাথা ফাটিয়ে রক্তাক্ত করা হয়েছে। আমরা এর বিচার দাবিসহ আমাদের ন্যায্য পারিশ্রমিক চাই।


এদিকে হামলার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।


এই বিষয়ে জানতে বিএনপি নেতা শাহ-আলম ও তার প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও সম্ভব হয়নি।

সময় নারায়নগঞ্জ.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:

শহরের বাইরে -এর সর্বশেষ